print
আবুল কালাম
Saturday 13 February 16

দৈনিক আমার দেশের সম্পাদকের মুক্তির দাবিতে আজ শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে মাহমুদুর রহমানকে কারাগার থেকে মুক্তির জন্য প্রধান বিচারপতির উদ্যাগ কামনা করেছেন বিশিষ্ট লেখক ও সমাজ চিন্তাবিদ ফরহাদ মজহার। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার হস্তক্ষেপ কামনা করে তিনি আরো বলেন, ‘সমস্ত মামলায় যেহেতু তার জামিন হয়েছে, তাই জনগণের পক্ষ থেকে আপনাকে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে। আমরা আপনার হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

ফরহাদ মজহার বলেন, ‘আমরা এমন মানুষের মুক্তির দাবিতে আজ মানববন্ধনে দাঁড়িয়েছি যিনি অনেক আগেই বলেছিলেন বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থা আফ্রিকার জঙ্গলের চেয়ে ভয়াবহ। জঙ্গলেরও কিছু বিধিবিধান আছে, কিন্তু বিচার বিভাগ দেশের জন্য যে বিপর্যয় তৈরি করেছে তা অবিশ্বাস্য।

ফরহাদ মজহার বলেন, ‘মাহমুদুর রহমানকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে। আর যদি তা উপেক্ষা করা হয় তাহলে বিচার বিভাগ তার ভাবমূর্তি আরও হারাবে। বাংলাদেশ অত্যন্ত খারাপ পরিণতির দিকে যাবে। এতে মাহমুদুর রহমানের কিছুই হবে না, তার জনসমর্থন আরো বৃদ্ধি পাবে। বিচারবিভাগের নিজের স্বার্থেই মাহ্মুদুর রহমানকে মুক্তি কিম্বা নিদেন পক্ষে তাঁর জামিন পাওয়া ও সুবিচার পাবার অধিকার নিশ্চিত করা জরুরী।

সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রুহুল আমিন গাজী বলেন, দেশের বর্তমান বিচার অঙ্গনে ন্যায়বিচারের অনুপস্থিতের কারণে সমস্ত মামলায় জামিন হওয়া সত্ত্বেও মাহমুদুর রহমানের মুক্তি হচ্ছে না।


আমার দেশ


মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশের) মহাসচিব এম আবদুল্লাহ, সাবেক মহাসচিব এম এ আজিজ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, সাংগঠনিক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম প্রমুখ।

দৈনিক আমার দেশ পরিবারের পক্ষ থেকে এই মানব বন্ধন আয়োজন করা হয়। আগামি কাল রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারি তারিখে তাঁর জামিনের বিরুদ্ধে সরকারের আপিলের শুনানি হবার কথা।


Available tags : দৈনিক আমার দেশ, মাহমুদুর রহমান, কারাগার, মুক্তি, বিচারবিভাগ

View: 723 Leave comments-(1) Bookmark and Share


ব্যাক্তি বন্ধুত্ব ও সাহিত্য


ব্যাক্তি বন্ধুত্ব ও সাহিত্য প্রথম প্রকাশ। এছাড়াও আরো দুটি কবিতার বই নতুন করে সংস্করণ করা হয়েছে। (১) অসময়ের নোট বই। (২) কবিতার বোনের সঙ্গে আবার। সাহিত্য ও কবিতা পাঠক প্রেমিকদের ধন্যবাদ।

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন প্রকাশক ফরহাদ মজহারের বই প্রকাশ করেছেন। আগ্রহী পাঠকদের সুবিধার জন্য এখানে কয়েকটি বইয়ের পরিচিতি দেওয়া হোল।


রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের সহযোগী গণমাধ্যম নিপাত যাক


সম্প্রতি ফরহাদ মজহারের বক্তব্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে বিকৃতি ঘটিয়ে ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের ক্যাডার একটি ক্ষুদ্র সাংবাদিক গোষ্ঠি মিথ্যা অপপ্রচার শুরু করে ও থানায় জিডি দায়ের করে।  বাক, ব্যক্তি ও চিন্তার স্বাধীনতাসহ মানবাধিকার ও গণতন্ত্রের জন্য ফরহাদ মজহারের নিরাপোষ লড়াই কারোরই অজানা নয়। সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে মামলা দিয়ে গ্রেফতার করে ফরহাদ মজহারকে রাষ্ট্রীয় ভাবে দমন, পীড়ন ও নির্যাতনের জন্য এই গোষ্ঠি তাদের সকল শক্তি নির্লজ্জ ভাবে নিয়োগ করেছে। এর মধ্য দিয়ে এদের সন্ত্রাস, সহিংসতা ও জিঘাংসার যে-চেহারা ফুটে উঠেছে তা বাংলাদেশের গণমাধ্যমের জন্য চিরকাল কলংক হয়ে থাকবে।

এর প্রতিবাদে বাংলাদেশের বুদ্ধিজীবী, কবি, সাহিত্যিক,  সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক কর্মী, আইনজীবী, রাজনৈতিক কর্মীসহ সকল স্তরের পেশার মানুষ এক্ত্রিত হয়ে 'আক্রান্ত গণমাধ্যম ও সংকটের আবর্তে দেশ' শিরোনামে একটি গোলটেবিলে একত্রিত হয়। তাঁরা সাংবাদিকতার নামে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস ও সহিংসতার নিন্দা জানান। এখানে সেই প্রতিবাদ সভার কিছু ছবি ও উপস্থিত নাগরিকদের বক্তব্য হাজির করা হচ্ছে। এ সভার মূল লক্ষ ছিল মত প্রকাশের অধিকার রক্ষা করা এবং চিন্তার স্বাধীনতার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হওয়া। 

সংবাদ-এলবামে প্রবেশের জন্য ওপরের ছবির ওপর ক্লিক করুন; বক্তব্যের জন্য খোলা-এলবামে প্রত্যেক বক্তার  ছবির ওপর ক্লিক করুন। ট্রান্সক্রিপশান সময় সাপেক্ষ বলে ধীরে ধীরে তোলা হচ্ছে। তবে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন পড়তে হলে দয়া করে নীচের সংযোগচিহ্নে যান

আমার দেশ: গোলটেবিল বৈঠকে ফরহাদ মজহারের পাশে বিশিষ্টজনরা : প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগই সঙ্কট মোকাবিলায় একমাত্র সমাধান : আমার দেশসহ বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দিন


চিন্তার সাম্প্রতিক সংখ্যা


পুরানো 'সন্ত্রাস' সংখ্যা। বছর ১৪ সংখ্যা ১, নভেম্বর ২০০৫ / অগ্রহায়ন ১৪১২। সম্পাদকীয়। দেরিদা, হাবারমাস এবং সন্ত্রাসকালে দর্শন -- জিওভান্না বোরাদরির সঙ্গে আলাপ। সন্ত্রাস, আইন ও ইনসাফ। বলপ্রয়োগ বিচার। সন্ত্রাসবাদের হকিকত। আধুনিকতায় ক্ষমতা এবং ধর্মীয় ঐতিহ্যের পুনর্গঠন। বিশ্ববাণিজ্য চুক্তির সন্ত্রাসঃ হংকং সভা। বীজ ও নারী বিপন্ন যমজ। মান্দিদের জীবন। নাখোজাবাদ বুলেটিন। দক্ষিণ এশিয়ায় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ। ৪র্থ সার্ক পিপলস ফোরাম। স্পেকট্রাম গার্মেণ্ট ও শ্রমিক হত্যাকাণ্ড।

 


চিন্তা পুরানা সংখ্যা


পাক্ষিক চিন্তার পুরানো কয়েকটি সংখ্যা। এর বেশ কয়েকটি এখনও পেতে পারেন। যোগাযোগ করুন, পাক্ষিক চিন্তা, ২২/১৩ খিলজি রোড, মহাম্মদপুর, ব্লক-২। শ্যামলী। ঢাকা-১২০৭।




EMAIL
PASSWORD