চিন্তা


চিন্তা ও তৎপরতার পত্রিকা

মন কি তুমি চিরজীবী

মন কি তুমি চিরজীবি, মন কি তুমি চিরজীবী
ভেবেছো এই দিন কি এমনি যাবে
দেহ পিঞ্জর (যেদিন) করে ভঙ্গ প্রাণ বিহঙ্গ পালাইবে।।

দশাননের দশা স্মরণ করেছে সেই ত্রেতাকালে
মনীন্দ্র যার জ্ঞাতি তাহার, কতো অশ্ব অশ্বশালে
কত অভয়া দিত অভয় ব্রহ্মা আদি ছিল সহায়
করেছিল ত্রিলোক বিজয় কালে ধ্বংস সবান্ধবে।।

দুর্যোধন দুঃশাসন একশত ভ্রাতা যার
কোথায় বা সেই অভিমন্যু স্বয়ং মাতুল গোবিন্দ যার
কোথা বা সেই পুরু বংশ, সবংশে সে হয়েছে ধ্বংস
কালে ধ্বংস হতেই হবে।।

পিতামাতা ভগ্নিভ্রাতা দারাপুত্র পরিবার
যাবার বেলায় আর কেউ নাই সাথে
সঙ্গে কেউ আর নাই তোমার
পড়বি যমের কুশাসনে, পড়বি যমের কুতাড়নে
সেদিন এই গোবিন্দ বিনে কে তোরে আর ত্বরাইবে।। 

গোঁসাই মোহন বলে ব্রজনাথরে ভবে গুরুর ভক্তই ধন্য
মনুষ্য গণ সার পদার্থ দেবলোক যারে করে মান্য
মলে গুরু শিষ্যের একই আত্মা, তাই হয়ে যায় পরমাত্মা
তোমার আমার একই কর্তা, তুমিই আমায় পারে লবে।।

(আরো পড়ূন)

পড়রে দায়েমী নামাজ

পড়রে দায়েমী নামাজ, এ দিন হল আখেরী।

মাসুক রূপ হৃদ কমলে, দেখ আশেক বাতি জ্বেলে,
কিবা সকাল কিবা বৈকালে
      দায়েমীর নাম অবধারি।

সালেকের বেহায়াপনা
মজ্জুবি আশেক দেওয়ানা
আশেক দিল হয়ে ফানা
মাশুক বই অন্যে জানে না,
আশার ঝুলি লয়ে সে না
     মাশুকের চরণভিখারী।।

কেফায়া আইনি যিন্নি
এই ফরজ জাত নিশানী
দায়েমি ফরজ আদায়, মিশেছে সে জাতে নূরি।

আইনির অদেখা তরিক
দায়েমি বরজখ নিরিখ
সিরাজ সাইজির হক্কের বচন
ভেবে কহে আবুঝ লালন
দায়েমি নামাজি যে জন
     শমন তাহার আজ্ঞাকারী।

(আরো পড়ূন)

ফকিরি করবি ক্ষ্যাপা কোন রাগে

ফকিরি করবি ক্ষ্যাপা কোন রাগে
আছে হিন্দু-মুসলমান দুই ভাগে।।

ভেস্তের আশায় মোমিনগণ
হিন্দুরা দেয় স্বর্গেতে মন
চল কী সে অটল মোকাম
      নিহাজ করে জান আগে।।

সেই ফকিরি সাধন করে
খোলসা রয় হজুরে
ভেস্তের সুখ ফাটক সমান
      সবাই ভালো তাই জানে।।

আখেরে অটল প্রাপ্তি কিসে হয়
মুরশিদের ঠাঁই জানা যায়
সিরাজ সাই তাই লালন ভেড়ো
      ভুগিস নে ভবের ভোগে।।

(শুদ্ধ পাঠ নির্ণয়: ১৫ এপ্রিল ২০১৮)

(শাহ, ২০০৯, পৃষ্ঠা ৫২)

 

(আরো পড়ূন)

সাঁই দরবেশ যারা

সাঁই দরবেশ যারা
আপনারে ফানা করে অধরে মিশায় তারা।।

মন যদি আজ হও রে ফকির
নাও জেনে সেই ফানার ফিকির
সে কেমন ধারা
ফানার ফিকির না জানিলে
ভস্মমাখা হয় মশকরা।।

কূপজলে সে গঙ্গাজল
পড়িলে হয় রে মিশাল
উভয় একধারা
তেমনি জেনো ফানার করণ
      রূপে রূপ মিলন করা।।

মুরশিদরূপে আর আলেক নূরি
এক মনে কেমনে করি
দুইরূপ নিহারা
লালন বলে রূপসাধনে
      হোসনে  যেন জ্ঞানহারা।।

(শুদ্ধ পাঠ নির্ণয়: ১৫ এপ্রিল ২০১৮)

(শাহ, ২০০৯, পৃষ্ঠা ৫১)

 

(আরো পড়ূন)

নবী দ্বীনের রাসুল খোদার মকবুল

নবী দ্বীনের রাসুল খোদার মকবুল।
ও নাম ভুল করিলে পড়বি ফেরে হারাবি দুই কুল।

নবী পাঞ্জাগানা নামাজ পড়ে
  সেজদা দেয় সে গাছের পরে
সেই না গাছের ঝরে পড়ে ফুল;
  সেই ফুলেতে মৈথুন করে
দুনিয়া করলেন স্থুল।।

নবী আউলে আল্লার নূর
   দুওমেতে তওবার ফুল
সিয়ামেতে ময়নার গলার হার;
  চৌঠামেতে নূর ছিতারা
পঞ্চমে ময়ূর।।

আহাদে আহাম্মদ বর্ত
   জেনে কর তাহার অর্থ
হয় না যেন ভুল;
  লালন বলে ভেদ না জেনে
হ’লাম নামাকুল।।

(আরো পড়ূন)