চিন্তা


চিন্তা ও তৎপরতার পত্রিকা

নবী দ্বীনের রাসুল খোদার মকবুল

নবী দ্বীনের রাসুল খোদার মকবুল।
ও নাম ভুল করিলে পড়বি ফেরে হারাবি দুই কুল।

নবী পাঞ্জাগানা নামাজ পড়ে
  সেজদা দেয় সে গাছের পরে
সেই না গাছের ঝরে পড়ে ফুল;
  সেই ফুলেতে মৈথুন করে
দুনিয়া করলেন স্থুল।।

নবী আউলে আল্লার নূর
   দুওমেতে তওবার ফুল
সিয়ামেতে ময়নার গলার হার;
  চৌঠামেতে নূর ছিতারা
পঞ্চমে ময়ূর।।

আহাদে আহাম্মদ বর্ত
   জেনে কর তাহার অর্থ
হয় না যেন ভুল;
  লালন বলে ভেদ না জেনে
হ’লাম নামাকুল।।

(আরো পড়ূন)

রাসুলের দ্বীন সত্য মান

ভুল না মন কারো ভোলে
রাসুলের দ্বীন সত্য মান  ডাক তারে আল্লা বলে।।

খোদা প্রাপ্তি মূল সাধনা  রাসুল বিনা কেউ জানেনা
জাহের বাতেন উপসনা  রাসুল হইতে প্রকাশিলে।।

দেখাদেখি সাধিলে যোগ   বিপদ হবে বাড়িবে রোগ
যে জনা শুদ্ধ সাধক   নবীর ফরমানে সে চলে।।

 

অপরকে বুঝাইতে তামাম  করেন রাসুল জাহেরা কাম

বাতুনে মশগুল মোদাম    কারো কারো জানাইলে।।

যেরূপ মুর্শিদ সেইরূপ রাসুল  যে ভজে সে হবে মকবুল
সিরাজ সাঁই কয় লালন কি কুল পাবি মুর্শিদ না ভজিলে।।

 

 

 

 

(আরো পড়ূন)

মদিনায় রাসুল নামে কে এল ভাই  

মদিনায় রাসুল নামে কে এল ভাই
কায়াধারী হয়ে কেন
   তার ছায়া নাই।।

ছায়াহীন যার কায়া
ত্রিভুবন তারি ছায়া
এই কথাটির মর্ম লওয়া
    অবশ্যিই চাই।।

কি দিব তুলনা তারে
খুঁজেন না পাই এ সংসারে
মেঘে যেমন ছায়া ধরে
   ধুপের সময়।।

কায়ার শরিক ছায়া দেখি
ছায়াহীন সেই লা-শরিকী
লালন বলে তার হাকিকী
   বলীতে ডরাই।।

 

(আরো পড়ূন)

রাসুল রাসুল বলে ডাকি

রাসুল রাসুল বলে ডাকি
রাসুল নাম নিলে বড় সুখে থাকি।।

মক্কায় যেয়ে হজ্ব করিয়ে
   রাসুলের রূপ নাহি দেখি
মদিনাতে যেয়ে রাসুল
   মরেছে তার রওজা দেখি।।

হায়াতুল মুরসালিন বলে
  কোরানেতে লেখা দেখি
দ্বীনের রাসুল মারা গেলে
  কেমন করে দুনিয়ায় থাকি।।

কুল গেল কলঙ্ক হল
   আর কিবা আছে বাকি
দরবেশ সিরাজ সাঁই কয় অবোধ লালন
  রাসুল চিনলে আখের পাবি।।

(আরো পড়ূন)

আয়গো যাই নবীর দ্বীনে

 দ্বীনের ডঙ্কা[১] বাজে শহর মক্কা মদিনে
আয়গো যাই নবীর দ্বীনে।।

তরিক দিচ্ছেন নবী জাহের বাতেনে
যথাযৌগ্য লায়েক জেনে

রোজা আর নামাজ   ব্যক্ত এহি কাজ
গুপ্ত পথ মেলে ভক্তির সন্ধানে।।

 অমূল্য দোকান খুলছেন নবী
যে ধন চাবি সেই ধন পাবি

বিনা করির ধন    সেধে দেয়এখন
না লইলে আখেরে পস্তাবে মনে।।

নবীর সঙ্গে ছিল ইয়ার চারজন
চারকে দিলেন নবী চার মতো যাজন।।

নবী বিনে পথে   গোল হোল চারমতে
ফকির লালন বলে যেন গোলে পড়িস নে।।

 

(আরো পড়ূন)

পারে কে যাবি নবীর নৌকাতে আয়

পারে কে যাবি নবীর নৌকাতে আয়
রূপকাষ্ঠের নৌকাখানি নাই ডুবার ভয়
    সেই নৌকর নাই ডুবার ভয়।।

বেশরা নেয়ে যারা
তুফানে যাবে মারা   একই ধাক্কায়
কি করবে (তোর) বদর গাজী থাকবে কোথায়
    বদর গাজী থাকবে কোথায়।।

নবী না মা নে যারা
মোহায়েদ কাফের তারা  এই দুনিয়ায়;
ভজনে তার নাই মুজিরী সাফ লেখা যায়
    দলিলে সাফ লেখা যায়।।

যে মুর্শিদ সেইতো রসুল
তাহাতে নাই কোন ভুল  খোদাও সে হয়
লালান বলে নাই এ কথা কোরানে কয়
    সে কথা কোরানে কয়।।

(আরো পড়ূন)

ভেবে দেখ রে আমার রাসুল যাব কাণ্ডারী এই ভবে

ভেবে দেখ রে আমার রাসুল যাব কাণ্ডারী এই ভবে
ভব নদীর তুফানে কি তার নৌকা খানি ডোবে।।

 তরিকার নৌকা খানি,
এশেক নাম তার বলেন শুনি,
বিনা বাওয়ায় চলছে অমনি,
      রাত্রি দিবে।।

ভুল না মন কারো ধোঁকায়,
চড়ো ঐ তরিকার নৌকায়,
বিষম ঘোর তুফানের দায় ,
      বাঁচবি তবে।।

ভাবের নৌকা নাহি চড়ি,
কেমনে দিবে ভব পাড়ি,
লালন বলে এহি ঘড়ি,
   দেখ মন ভেবে।।

 

(আরো পড়ূন)

তোমার মত দয়াল বন্ধু আর পাব না

তোমার মত দয়াল বন্ধু আর পাব না
দেখা দিয়ে ওহে রাসুল   ছেড়ে যেও না।।

তুমি তো খোদার দোস্ত    অপারের কাণ্ডারী সত্য
তোমা বিনে পারের লক্ষ্য   আর তো দেখি না।।

আসমানি এক আইন দিয়ে  আমাদের আনলেন রাহে
এখন মোদের ফাঁকি  দিয়ে   ছেড়ে যেও না।।

আমরা সব মদিনাবাসি   ছিলাম যেমন বনবাসি
তোমা হতে জ্ঞান পেয়েছি   আছি সান্ত্বনা।।

তুমি বিনে এরূপ শাসন  কে করবে আর দ্বীনের কারন
লালন বলে আর তো এমন   বাতি জ্বলবে না।।

(আরো পড়ূন)