চিন্তা প্রতিবেদক


Saturday 03 July 10

print

গানের দল সমগীতের যাত্রা ২০০২ সালে। নারায়ণগঞ্জে। সমগীতের প্রথম এ্যালবাম “হাওয়া” বাজারে এসেছে। কথা সুর বাণী বৈচিত্র্যে মানুষ, চৈতন্য, দ্রোহ, স্বাধীনতা তুলে ধরেছে। রাজনৈতিক আশা আকাঙ্ক্ষা আর হার না মানাকে একই মালায় গেঁথেছে। লোক আর নাগরিক উচ্ছ্বাস টের পাওয়া যায় কথা ও সুরে। ক্রসফায়ারে নিহত যুবক, পাহাড়ী মানুষের কথা আছে তাদের গানে। ক্রসফায়ারে নিহত যুবক ‘তুমি কে?’ বলে আমাদের সবাইকে চমকে দেয়। ‘হাওয়া’ গানটির কয়েকটি লাইন হলো, ‘তুমিই পোড়োনা পোড়ো শিমুল আগুনে, তুমিই নাচো না নাচো কানা মেঘ এলে, শিশুটা তো ভিজবেই নেচে কাদা গায়, তুলো ফেটে উড়বে হাওয়ার টানে, হাওয়ার টানে.. হাওয়া...’। ‘অথচ জারুল হাসে’ এই গানের কয়েকটি লাইন হল, ‘তোমার আমার ভালোবাসা করপোরেটের বারান্দায়, মোড়কে মোড়কে মুখ লুকোবার আগে ভালোবাসি- ও লাল রোদ কৃষ্ণচূড়া ভালোবাসি’। এই প্রয়াসকে তারা জীবনমুখী গান বা গণসংগীত বলতে নারাজ। তাদের মতে, সংগীতে এই ধরনের কোনো ধারা নাই। এগুলো বাজারী চমক। তারা আধুনিক গানই করছেন। মোট নয়টি গান রয়েছে এই এ্যালবামে। গানগুলোর শিরোনাম হলো, ’হাওয়া’, ‘ঘুম ভাঙ্গার গান’, ‘বিলবোর্ড’, ‘ঘুরে ঘুরে প্রতিদিন’, ‘রোদের হাটে’, ‘সখী’, ‘অথচ জারুল হাসে’, ‘পথের পরাণ’, ‘ঝর্ণার ছন্দে’।

গানের কথা ও সুর: অমল আকাশ। কণ্ঠ: অমল আকাশ, মুসা কলিম, বিথী ঘোষ, রেবেকা নীলা, অর্ক, রোকসানা আমীন, শুভ ও সোহাগ । সংগীত: অর্ক

প্রযোজনা: বাহিরানা অডিও ভিজ্যুয়াল

বাজারজাত ও বিতরণ: জি-সিরিজ

 


প্রাসঙ্গিক অন্যান্য লেখা


লেখাটি নিয়ে এখানে আলোচনা করুন -(0)

Name

Email Address

Title:

Comments


Inscript Unijoy Probhat Phonetic Phonetic Int. English
  

View: 1662 Leave comments (0) Bookmark and Share


Go Back To Arts & Culture
EMAIL
PASSWORD